ডেস্টিনেশন ওয়েডিং থেকে জাঁকজমকপূর্ণ রিসেপশন, কি কি হয়েছিল নুসরাতের তথাকথিত লিভ ইন সম্পর্কে?

নির্বাচনী হলফনামা থেকে সদনে শপথ বাক্য পাঠ – সব কিছুতেই “বিবাহিত” “নুসরাত জাহান রুহি জৈন”। চোখ ধাঁধানো বিলাসবহুল ডেস্টিনেশন ওয়েডিং তুরস্কে – মালাবদল, সিঁদুর দান থেকে সপ্তপদী, জন প্রতিনিধির বিবাহ দেখে আনন্দের স্রোতে ভেসে গিয়েছিলেন অগণিত ভক্ত। বিয়েতে উপস্থিত যাদবপুরে তৃণমূল সাংসদ এবং নুসরাতের প্রিয় বন্ধু মিমি চক্রবর্তী। রিসেপশন পার্টিতে উপস্থিত ছিলেন স্বয়ং রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কিন্তু সবকিছুই শুধুমাত্র লিভিং সম্পর্ক উদযাপন করার জন্য!

প্রশ্ন উঠছে কারণ আজ নুসরাত জাহান বিবৃতি দিয়ে জানিয়েছেন যে তিনি নিখিল জৈন সাথে বিবাহিত নন, লিভ ইন সম্পর্কে ছিলেন। যদিও আগে বরাবর সিঁথিতে মোটা সিঁদুর পড়ে নিজেকে বিবাহিত বলে দাবি করেছিলেন নুসরাত। এই “লিভ ইন” সম্পর্কের জাঁকজমকপূর্ণ রিসেপশন পার্টিতে কে কে এসেছিলেন দেখা যাক।

উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং রাজ্যের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রী অরূপ বিশ্বাস। উপস্থিত ছিলেন বর্তমান বিজেপি বিধায়ক অগ্নিমিত্রা পল। উপস্থিত ছিলেন বর্তমান তৃণমূল বিধায়ক সোহম চক্রবর্তী। উপস্থিত ছিলেন বেহালা পশ্চিমের বিজেপি প্রার্থী শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায় এবং শ্যামপুরের বিজেপি প্রার্থী তনুশ্রী চক্রবর্তী। উপস্থিত ছিলেন বিখ্যাত অভিনেত্রী রাইমা সেন এবং পাওলি দাম। অভিনেতাদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়, জিৎ গাঙ্গুলী, অরিন্দম শীল, প্রমুখ। কিন্তু এত আয়োজন কেন হয়েছিল? শুধুমাত্র নাকি লিভ ইন উদযাপন করতে!

স্বাভাবিকভাবেই উৎসুক উজ্জীবিত নেটিজেনরা এই জল কতদূর গড়ায়, সেই দিকেই তাকিয়ে।