করোনা কমতেই ট্রেনের টিকিট বুকিং-এ উৎসাহী পর্যটক, পর্যটকের দল দিঘাতেও

২০২০ সালের মার্চ মাস থেকে করোনা মহামারীর জন্য স্তব্ধ জনজীবন, গৃহবন্দি প্রাণ। প্রথম ঢেউ এই বছরের জানুয়ারি মাস নাগাদ একটু দুর্বল হলেও ফেব্রুয়ারির শুরুর দিকে আবার ভয়ংকরভাবে ছড়াতে থাকে করোনা। শুরু হয় লকডাউনের নতুন মরশুম এবং আবার থমকে যায় জনজীবন।

কিন্তু ভ্রমণপ্রিয় বাঙালিকে আটকানো এত সহজ নয়। গরমের ছুটিতে দার্জিলিং-গ্যাংটক, শীত-বসন্তে দীঘা, দুর্গাপূজায় পুরী – ভ্রমণপ্রিয় বাঙালিরা সারা বছরের যাত্রার প্ল্যান বছরের শুরুতেই তৈরি করে রাখে।

করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের প্রভাব দেশে একটু কমতে থাকায় আবার মনে উৎসাহ বেড়েছে বাঙালির। এ বছরের দূর্গা পূজার ষষ্ঠী সোমবারে পড়ছে এবং দশমী শুক্রবারে। সাথে রয়েছে শনি ও রবিবার ছুটির লম্বা উইকএন্ড। এমন সুযোগ কি হাতছাড়া করা যায়! দুর্গাপূজার সময় কলকাতা থেকে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে ট্রেনের টিকিট বুকিং শুরু হওয়ার কিছুক্ষণের মধ্যেই শেষ!

ইয়াশ ঘূর্ণিঝড়ে বিপর্যস্ত হয়েছিল সমুদ্র নগরী দীঘা। সৈকত নগরী ক্ষতিগ্রস্ত হলেও টান থেকে যাচ্ছে পর্যটকদের। তাই ফের পর্যটক আসতে শুরু করেছে নতুন করে সেজে ওঠা সৈকত নগরী দীঘা। সমুদ্রের উত্তাল ঢেউ সহ ইয়াস ঝড় কিছুদিন আগে তছনছ করে দিয়েছিল পর্যটকদের প্রিয় স্থান দীঘা। তাঁরপরই পরিদর্শন করে এলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জী, এবং অভিষেক ব্যানার্জী । প্রাকৃতিক দুর্যোগ স্থির হতেই যেন নতুন করে সূর্যদয় হতে চলেছে দীঘা সমুদ্র ঘিরে, তাই আবার দীঘার বুকে আসতে দেখা যাচ্ছে পর্যটকদের।

আশা করা যাচ্ছে এক বছরের বেশি সময় ধরে মন্দায় চলা পর্যটন ক্ষেত্র এবার আবার নতুন সম্ভাবনায় উদ্দীপ্ত হয়ে উঠবে।