পশ্চিমবঙ্গে সর্বোচ্চ ধনীদের তালিকায় তিরিশ জনের মধ্যে বাঙালি মাত্র তিন, এই নিয়ে বিস্ফোরক গর্গ চট্টোপাধ্যায়



অয়ন মাইতি, খবরওয়ালা টিভি ডেস্ক –

বাংলার অর্থনীতি তবে কি শেষমেশ বাঙালিদের হাত থেকেই ফসকে যাচ্ছে? বর্তমান সমীক্ষা কিন্তু সেই কথাই বলছে। আইআইএলএফ এর প্রকাশ করা একটি সমীক্ষায় দেখা যাচ্ছে, ২০২১ সালের শেষভাগে এসে পশ্চিমবঙ্গের সবচেয়ে ধনী ৩০ ব্যক্তিদের মধ্যে বাঙালিদের স্থান মাত্র তিনটি। তাও প্রথম তিনটি স্থান কব্জা করে রেখেছে অবাঙালিরাই। এই সমীক্ষা নিয়ে খবরওয়ালা টিভির সামনে সরাসরি নিজের বক্তব্য রাখলেন বাংলা পক্ষের দাপুটে নেতা গর্গ চট্টোপাধ্যায়।



এই সমীক্ষা সম্পর্কে কথা বলতে গিয়ে প্রথমেই তিনি বলেন,’আমাদের সোনার বাংলাকে ওরা লুট করতে এসেছিল। এটা এই কয়েক বছরের কথা নয়, ১৯৪৩ সাল থেকেই কালোবাজারি করে, বাংলার সাত লক্ষ সাধারণ মানুষ খুন করে “কালো টাকা” রোজগার করার কারচুপি শুরু করেছিল বর্গীরা। মোঘলরা আক্রমণ করার সময় থেকেই এরা বাংলায় নিজেদের ঘাঁটি গেয়েছিল।’

প্রসঙ্গত, ৩০ জনের এই তালিকায় তিন বাঙালি দীপঙ্কর চট্টোপাধ্যায়, মোস্তাক হোসেন এবং শুভঙ্কর সেন। তালিকায় প্রথম স্থান অধিকার করে রেখেছে শ্রী সিমেন্টের মালিক বাঙ্গুর পরিবার। দ্বিতীয় স্থানে থাকা সঞ্জীভ গোয়েঙ্কা কি বাঙালি, এমন প্রশ্নের প্রত্যত্তরে তিনি বলেন,’ইতিহাসটা পড়ুন। ঘরে বাঙালি জামাই আর ভোটের পর “হাম তো বাঙ্গালী হ্যয়” বললেই বাঙালি হওয়া যায় না।’

সদ্য বিজেপি থেকে তৃণমূল কংগ্রেসে যোগ দেওয়া বাবুল সুপ্রিয়কেও ছেড়ে কথা বলেননি তিনি। তীক্ষ্ণ সুরে তিনি বলেন,’কিছু সস্তা বাঙালি আছে যারা কিছু টাকার লোভে এদের পা চাটে। শুধু পন্য তৈরি করলেই তো হবে না, তার মানুষের মধ্যে বিলিয়ে দিতে হবে। এমনই এক বাঙালির নাম শ্রীমান বাবুল সুপ্রিয়।’

শেষে ওই তিন বাঙালিদের নিয়ে গর্ববোধ করতেও ভোলেননি ভদ্রলোক। তাঁর স্পষ্ট দাবি,’সব বাঙালি যদি একত্রিত হয়, তাহলে উটে চেপে “সোনার কেল্লা”-য় দৌড় দেওয়া ছাড়া আর কোন উপায় থাকবে না এদের।’