নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুর জন্মবার্ষিকীতে ভুল মন্তব্য, টুইটে খোঁচা দিয়ে মমতাকে আক্রমণ করলেন অগ্নিমিত্রা

নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুর ১২৫তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষ্যে এ বছর প্রজাতন্ত্র দিবস এবং নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুর জন্মবার্ষিকী একসঙ্গে পালন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কেন্দ্র ।তা মাথায় রেখেই বাংলার ট্যাবলো তৈরি করা হয়েছিল। সেই থিমের নাম দেওয়া হয়েছিল ‘নেতাজি ও আজাদ-হিন্দ বাহিনী’ ।নেতাজির জন্মদিনের সকালেই একের পর এক ট্যুইট করে নেতাজি সুভাষ চন্দ্র বসুকে নিয়ে একাধিক পরিকল্পনার কথা ঘোষণা করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।এদিন নেতাজির জন্ম জয়ন্তী উপলক্ষে বাংলার সংস্কৃতি বিভাগ এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। দুপুর ১২.১৫ মিনিটে সাইরেন বাজানো হয়। বাংলায় বাড়িতে বাড়িতে শঙ্খ বাজানো হয়। এই উপলক্ষে, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নিজেই নেতাজি সুভাষ চন্দ্র বসুকে শঙ্খ বাজিয়ে শ্রদ্ধা জানান। অনুষ্ঠানে নেতাজি পরিবারের সদস্যরাও উপস্থিত ছিলেন।

এর মাঝে বিতর্কের সুর শোনা যায় বিজেপি দলনেত্রী অগ্নিমিত্রা পালের কন্ঠে। ঘটনাচক্রে এক অনুষ্ঠানে মুখ্যমন্ত্রী বলেন যে , ১৯৪৬ সালের ১৬ ই আগস্ট বেলেঘাটার গান্ধি ভবনে গান্ধিজির অনসন ভাঙবার জন্য বিশ্ব কবি গিয়েছিলেন মহাত্মা গান্ধীর কাছে। কিন্তু ইতিহাস বলছে অন্য কথা আজ পর্যন্ত পাওয়া সমস্ত তথ্য অনুযায়ী হাজার ১৯৪১ সালে পরলোকে গমন করেছেন বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর। বিতর্কের সূত্রপাত এখানেই বিরোধী দলনেত্রী অগ্নিমিত্রা পালের দাবি শুধুমাত্র জাতীয়তাবাদী হওয়ার চেষ্টা করেন মুখ্যমন্ত্রী। মুখ্যমন্ত্রীর এরূপ মন্তব্যে তীব্র আক্রমণ করলেন বিজেপির রাজ্য সাধারণ সম্পাদক অগ্নিমিত্রা পাল।